26 Jan 2022, 08:29 pm

কালাম ইয়ুথ লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড ২০২১’ সম্মাননা পেয়েছেন বাংলাদেশের মাসুমা মরিয়ম

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

‘স্বপ্ন তা নয় যা মানুষ ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে দেখে, স্বপ্ন তা-ই যা মানুষকে ঘুমাতে দেয়না’ ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি এপিজে আবুল কালাম আজাদ এর এই উদ্ধৃতিকে লালন করে যুব উন্নয়নে ভূমিকা রাখায় ‘কালাম ইয়ুথ লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড ২০২১’ সম্মাননা পেয়েছেন বাংলাদেশের মাসুমা মরিয়ম।

সম্প্রতি ভারতের খোয়াব ফাউন্ডেশন ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি এপিজে আবুল কালাম আজাদ এর স্মরণে তৃতীয়বারের মতো আয়োজন করে ‘কালাম ইয়ুথ লিডারশীপ কনফারেন্স ৩.০’ যেখানে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যুবরা অংশগ্রহণ করে। প্রতিবারের মত এবারও এই কনফারেন্স এ ‘কালাম ইয়ুথ লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করা হয়। এবছর ভারত, পাকিস্তান, ইয়েমেন, নাইজেরিয়া, আফগানিস্তান, ইরাক ও বাংলাদেশ থেকে ২২ জনকে এ পুরষ্কারে ভূষিত করা হয়। সেখানে একমাত্র বাংলাদেশী হিসেবে এবার মাসুমা মরিয়ম এ পুরষ্কার পান।

মাসুমা মরিয়ম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। মানুষের জন্য বিশেষ করে যুব-সমাজের জন্যে ২০১৫ সাল থেকেই কাজ করছেন তিনি।

করোনা মহামারির কঠিন সময়ে মাসুমা শুধু যুবদের জন্য নয়, নারী-শিশু থেকে শুরু করে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের কল্যাণে কাজ করেছেন। তার উল্লেখযোগ্য সামাজিক কর্মকাণ্ডের মধ্য, লক-ডাউনের আগে ঢাকা ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে করোনা সচেতনতা সৃষ্টি। যুবাদের জন্য ফটোগ্রাফি, লেখালেখি, পাওয়ার-পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন প্রতিযোগিতা। ৩৪টি দেশের প্রায় সাড়ে ৭শ’ তরুণ-তরুণী নিয়ে ভার্চুয়াল ‘ইন্টারন্যাশনাল ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট সামিট আয়োজন। তরুণদের দক্ষতা বৃদ্ধির সুযোগ সৃষ্টি করে দিতে ‘স্বপ্ন ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট অরগানাইজেশান’ এর মাধ্যমে প্রতি মাসেই আয়োজন করছেন সময়োপযোগী বিভিন্ন ট্রেইনিং ও ওয়াকর্শপ।

তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতার জন্যে ‘হাউ আর ইউ, রিয়েলি?’ ক্যাম্পেইন আয়োজন করেছিলেন তিনি। তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখতে শতাধিক যুবাদের নিয়ে ‘সাইকোলজিক্যাল ফার্স্ট এইড ট্রেইনিং’ও আয়োজন করেন তিনি।

এছাড়া নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ প্রতিরোধে ‘রাইট টু ফাইট এগেইনস্ট হারেসমেন্ট’ ক্যাম্পেইনসহ করোনা সংক্রমণ রোধে নিজ এলাকায় মাস্ক বিতরণ করেছিলেন এই নারী। এছাড়া করোনাকালে সবার জন্যে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং বাল্যবিয়ে বন্ধে পুরুষের সক্রিয় অংশগ্রহণে যুবদের এডভোকেসি প্রকল্প’তে কাজ করেছেন মাসুমা। এছাড়াও জলবায়ু পরিবর্তন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও উদ্যোক্তাদের জন্যেও কাজ করছেন তিনি।

এই সব কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ মাসুমা মরিয়ম পেয়েছেন ‘ন্যাশনাল ইয়ুথ আইকন এওয়ার্ড ২০১৯’, জায়গা করে নেন ‘ওয়ার্ল্ড ইয়াং পারসন অব দ্য ইয়ার ২০১৯’ এর সংক্ষিপ্ত তালিকায়। পেয়েছেন ডিউক অব এডিনবার্গ এওয়ার্ড’ এর ব্রোঞ্জ পদক। অতিমারির সময় পান ‘গ্লোবাল চেইঞ্জমেকার এওয়ার্ড-২০২০’ ও ‘আউটস্ট্যান্ডিং লিডারশীপ এজ এ ফ্রন্ট লাইন ফাইটার ডিউরিং কোভিড-১৯’। এছাড়াও ‘কালাম ইয়ুথ লিডারশীপ কনফারেন্স-২০২০’ এ সেরা বক্তার পুরষ্কারও পান তিনি।

মাসুমা মরিয়মের বাড়ি বগুড়ার শেরপুরে। বাবা মোহাম্মাদ আলী শেরপুর শহীদীয়া ফাজিল মাদ্রাসার প্রভাষক। মা শাহানাজ পারভীন গ্লোবাল টিচার্স প্রাইজ ২০১৭ এর বিশ্বের সেরা ৫০ শিক্ষকের একজন। ছোটবোন আমিনা মুমতারিন শ্রেয়া বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজের ১০ম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত।

 

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us at Facebook

Default description


This will close in 30 seconds